প্রথমপাতা  

সাম্প্রতিক সংবাদ 

 স্বদেশ

আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশ কমিউনিটি

লাইফ স্টাইল

এক্সক্লুসিভ

বিনোদন

স্বাস্থ্য

বর্তমানের কথামালা

 শিল্প-সাহিত্য

 প্রবাসপঞ্জী 

আর্কাইভ

যোগাযোগ

@

@

@

@

@

আত্মসমর্পণের সময় নিয়াজির চোখ অশ্রুসজল হয়ে ওঠে

@

@

@

আশরাফুল হক ।।
মাহমুদুল হাসান রাজু ।।


১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর ঢাকার রেস কোর্স ময়দানে পাকিস্তানি বাহিনীর আত্মসমর্পণের সময় ওই বাহিনীর তৎকালীন পূর্বাঞ্চলীয় কমান্ডের কমান্ডার লে. জেনারেল এ এ কে নিয়াজীর চোখ অশ্রুসজল হয়ে ওঠে।
প্রত্যক্ষদর্শী বিদেশি দুই সাংবাদিকের মধ্যে নিউইয়র্ক টাইমসের সাংবাদিক জেমস পি স্টেরবাfর eইন ঢাকা, দ্য কিলিংস পারসিস্ট এমিড রেভেলরিf এবং টাইমস অব লন্ডনের পিটার ওfলাফলিনfর eপাকিস্তানী জেনারেল নেযার টু টিয়ারস সাইনস এ্যাট রেস কোর্স সেরেমনিf প্রতিবেদনে আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে পাকিস্তানি জেনারেলের অশ্রুসজল চোখের উল্লেখ রয়েছে।f
সাংবাদিক জেমস পি স্টেরবা আত্মসমর্পণের প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে তার প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, জেনারেল অরোরা আত্মসমর্পণের দলিল নিয়াজির হাতে দিলে তিনি দাঁড়িয়ে তা সাবধানতার সঙ্গে পড়েন এবং পরে বসে কলম দিয়ে স্বাক্ষর করেন। তখন পাকিস্তানি কমান্ডার অশ্রুসজল চোখে আবার দাঁড়ান এবং ধীরে ধীরে তার পিস্তল জেনারেল অরোরার কাছে হস্তান্তর করেন।
প্রতিবেদনে বলা হয়, এ ছাড়া তিনি ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় বাহিনীর কমান্ডার লে. জেনারেল জগজিৎ সিং অরোরার দিকে এগিয়ে পাগড়ি পরিয়ে দেন। এ সময় জেনারেল নিয়াজী ছিলেন ভাবলেশহীন। আর জেনারেল অরোরার মুখ ছিল হাস্যোজ্জ্বল।
সাংবাদিক স্টেরবা তার রিপোর্টে লিখেন, ঘাসের উপরে একটি কাঠের টেবিলে আত্মসমর্পণ দলিলে স্বাক্ষরের সময় ভারতীয় এক কোম্পানি ও পাকিস্তানি এক প্লাটুন সৈন্য তাদের রাইফেল নিয়ে দাঁড়িয়েছিলো। এ সময় ভারতীয় বাহিনীর ট্যাংক গর্জে ওঠে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হওয়ার পর সাবেক সিভিল সরকারের উপদেষ্টা ও পশ্চিম পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর উপদেষ্টা রাও ফরমান আলী একাকী নিরবে দাঁড়িয়েছিলেন। এ সময় তরুণ বাঙালিরা তাকে eকসাইf বলে বিদ্রƒপ করছিলেন। এতে আরো বলা হয়, আত্মসমর্পণের দলিলে স্বাক্ষরের পর পরই একদল তরুণ বাঙালি পাকিস্তানি জেনারেল নিয়াজির মাথার ঠিক উপরে বাংলাদেশের পতাকা তুলে ধরে।
মুক্তিযুদ্ধে বাঙালিদের প্রতি অমানবিক আচরণের কারণে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর প্রতি বাঙালির পুঞ্জিভূত তীব্র ঘৃণার উল্লেখ করে জেমস পি স্টেরবা লিখেন, একজন বাঙালি পাকিস্তানি কর্মকর্তাদের খোঁজেন এবং চিৎকার করে বলেন, বাস্টার্ড হত্যাকারীরা কোথায়?
টইমস অব লন্ডনের সাংবাদিক পিটার ওfলাফলিন তার প্রতিবেদনে বলেন, ঢাকার রেস কোর্সে ভিড়ের মধ্যে স্বপ আলোতে একটি টেবিল পেতে আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। এ সময় লে. জেনারেল এ এ কে নিয়াজী বিষণœ অবস্থায় আত্মসমর্পণ দলিলে স্বাক্ষর করেন।
ভারতীয় বাহিনী পরিবেষ্টিত ওই অনুষ্ঠানে হাজার হাজার বাঙালি eজয় বাংলাf স্লোগান দিতে থাকে। মুহুর্মূহ স্লোগানের মাঝে আত্মসমর্পণকারী বিধ্বস্ত পাকিস্তানি জেনারেল নিয়াজী অশ্রুসজল চোখে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন।
আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানের সাক্ষী ভারতীয় সেনা কর্মকর্তা, লে. কর্নেল বিপি হিখিfর উদ্ধৃতি দিয়ে পিটার ওfলাফলিনfর প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রথামতে নিয়াজী তার কাঁধের র‌্যাংক ব্যাজ খুলে জেনারেল অরোরার হাতে তুলে দেন। এ সময় পাকিস্তানি বাহিনীর সেনারা মাথা নিচু করে দাঁড়িয়েছিল।

@

@

WARNING: Any unauthorized use or reproduction of 'Community' content is strictly prohibited and constitutes copyright infringement liable to legal action। 

 

@

[প্রথমপাতা]

@

@

@